• ঢাকা
  • |
  • শনিবার ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ সকাল ০৭:৪৪:০৭ (10-Dec-2022)
  • - ৩৩° সে:
এশিয়ান রেডিও

ঢাকা দক্ষিণ

ঢাকা উত্তর সিটি খাল-জলাশয়ের আবর্জনা পরিষ্কার করতে ৩০ নৌকা

৩০শে আগস্ট ২০২২ সন্ধ্যা ০৬:৪৩:০৫

ফাইল ছবি

প্রশস্ত খাল ও জলাশয়ের ময়লা-আবর্জনা ও কচুরিপানা পরিষ্কারের উদ্দেশ্যে নৌকাগুলো কেনা হয়েছে।

  • ফাইবার গ্লাসের তৈরি ৩০টি নৌকা কিনতে ব্যয় ১০ লাখ টাকা।
  • এসব নৌকা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় স্থানান্তরে সুবিধা।
  • মশার ওষুধ ছিটানোর কাজেও ব্যবহৃত হবে এই নৌকা।

রাজধানীর খাল ও জলাশয়ের আবর্জনা পরিষ্কারে ৩০টি নৌকা কিনেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) স্বাস্থ্য বিভাগ। ফাইবারগ্লাসের তৈরি এসব নৌকা কিনতে প্রায় সাড়ে ১০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে বলে জানিয়েছেন করপোরেশনের ভান্ডার ও ক্রয় বিভাগের কর্মকর্তারা।

ঢাকা উত্তর সিটির কর্মকর্তারা জানান, প্রশস্ত খাল ও জলাশয়ের ভাসমান ময়লা-আবর্জনা ও কচুরিপানা পরিষ্কারের উদ্দেশ্যে নৌকাগুলো কেনা হয়েছে। প্রয়োজনে নৌকায় চড়ে মশার ওষুধ ছিটানোর কাজও করা হবে।

২০২০ সালের ডিসেম্বরে ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে খালের দায়িত্ব বুঝে নেয় ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। এরপর নিজেদের আওতাধীন ২৯টি খাল ও ১টি জলাধারের আবর্জনা পরিষ্কার, গভীরতা বাড়ানো এবং অবৈধ দখলদার উচ্ছেদে দফায় দফায় উচ্ছেদ অভিযান চালানোসহ বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি। ফলে ঢাকা উত্তরের অনেক খালের চিত্র কিছুটা হলেও বদলেছে। দখল–দূষণে মৃতপ্রায় অনেক খালে এখন পানিপ্রবাহ দেখা যায়।

খাল–নালার দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার পর ভাসমান আবর্জনা পরিষ্কারে খালে কাঠের তৈরি নৌকাও নামিয়েছিল সংস্থাটির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ। কিন্তু নৌকাগুলো কাঠের তৈরি বলে এক খাল থেকে অন্য খালে স্থানান্তর বেশ কষ্টসাধ্য ছিল। এ কারণে ওই নৌকার ব্যবহার খুব একটা দেখা যায়নি।

স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, ১০টি অঞ্চলের প্রতিটিতে তিনটি করে ৩০টি নৌকা দেওয়া হয়েছে। শুধু অঞ্চল-১–এর আওতায় দুটি ওয়ার্ড হওয়ায় ওই অঞ্চলে দুটি নৌকা দেওয়া হয়েছে। তবে তিনটির বেশি ওয়ার্ড রয়েছে, এমন অঞ্চলে প্রয়োজন অনুযায়ী একেক দিন একেক এলাকায় নৌকা ব্যবহার করা হবে। অঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এটি সমন্বয় করবেন।

প্রায় দেড় মাস আগে প্রতিটি অঞ্চলে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের কাছে নৌকাগুলো হস্তান্তর করা হয়েছে। কিছু কিছু অঞ্চলে নৌকা নামিয়ে খাল, জলাশয় কিংবা পুকুরের আবর্জনা পরিষ্কারের কাজ শুরু হয়েছে।

তবে গতকাল রাজধানীর উত্তরায় ৬ নম্বর সেক্টরে ঢাকা উত্তর সিটির অঞ্চল-১–এর কার্যালয়ে তিনটি নৌকা পড়ে থাকতে দেখা যায়। নিচতলায় মশার ওষুধ ও অন্যান্য জিনিসপত্রের পাশে নৌকাগুলো রাখা ছিল। এগুলো অঞ্চল-৭–এর জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলে জানান দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা।

জানতে চাইলে অঞ্চল-৭–এর সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ফিরোজ আলম প্রথম আলোকে বলেন, ওই অঞ্চলে কচুরিপানা পরিষ্কারের কার্যক্রম আপাতত স্থগিত রয়েছে। তাই রেখে দেওয়া হয়েছে। ফিরোজ আলম অঞ্চল-৪–এর সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। তিনি বলেন, নতুন নৌকা দিয়ে ওই অঞ্চলের মিরপুর-১২ নম্বর সেকশন, কল্যাণপুর র‌্যাব কার্যালয় এবং মিরপুর–১ নম্বর সেকশনে হাউস বিল্ডিং রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পুকুরে বর্জ্য পরিষ্কারের কাজ করা হচ্ছে।

এ ছাড়া উত্তরা ৩ ও ৫ নম্বর সেক্টরে অবস্থিত রাজউকের লেকেও নৌকা নামিয়ে কাজ করা হচ্ছে বলে জানান অঞ্চল-১–এর সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মাহমুদা আলী। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, নৌকাগুলো বেশ ভালো। দুজন অনায়াসে উঠে কাজ করা যায়। একেকটি নৌকা অনেক জায়গায় ব্যবহার করতে হয়। এসব নৌকা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় স্থানান্তরে সুবিধা।

ঢাকা উত্তর সিটির উপপ্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা কর্নেল গোলাম মোস্তফা সারওয়ার প্রথম আলোকে বলেন, খালে বা জলাশয়ে ভাসমান কচুরিপানা কিংবা আবর্জনা থাকলে মশার লার্ভা নিধনের ওষুধ ছিটাতে সমস্যা হয়। আবার প্রশস্ত খাল ও জলাশয়ের আবর্জনা সব সময় পাড়ে দাঁড়িয়ে পরিষ্কার করাও সম্ভব হয় না। এ জন্য নৌকা কেনা হয়েছে।

গোলাম মোস্তফা আরও বলেন, অনেক এলাকায় খাল বা ঝিলের ওপর বাঁশের মাচার তৈরি বস্তিঘর রয়েছে। এর নিচে গিয়ে একজন মশককর্মী ওষুধ ছিটাতে পারেন না। ওই সব জায়গায় নৌকায় চড়ে ওষুধ ছিটানো সহজ হবে।

সর্বশেষ সংবাদ







নবীনগরে শ্বশুর বাড়ি থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার
৯ই ডিসেম্বর ২০২২ সন্ধ্যা ০৭:৪৪:২৫


নারায়ণগঞ্জ শহরে জলকামান মোতায়েন
৮ই ডিসেম্বর ২০২২ বিকাল ০৫:৫৫:৪৭


ASIAN TV